ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে প্রধানমন্ত্রী
বন্ধুত্ব যেকোনো সমস্যার সমাধান করতে পারে

বন্ধুত্ব যেকোনো সমস্যার সমাধান করতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার সকালে ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে নরেন্দ্র মোদি ও তার মন্ত্রিসভার সদস্যদের সঙ্গে আলাপকালে এ মন্তব্য করেন তিনি। শেখ হাসিনা বলেন, ‘ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে, আমরা একে অপরকে সহযোগিতা করছি।’ খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার। তিনি বলেন, ‘আশা করি, এটি অত্যন্ত ফলপ্রসূ একটি আলোচনা হবে। আমাদের মূল লক্ষ্য বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের মাধ্যমে অর্থনৈতিকভাবে দুই দেশের উন্নয়ন করা এবং আমাদের জনগণের মৌলিক চাহিদা পূরণ করা। আমরা সবসময় এই সম্পর্ক বজায় রাখি।’ শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমি যখনই ভারতে আসি, এটা আমার জন্য আনন্দের, বিশেষ করে কারণ আমরা সবসময় আমাদের মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের অবদানের কথা স্মরণ করি।’ মঙ্গলবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে আনুষ্ঠানিক স্বাগত জানান নরেন্দ্র মোদি। সেখানে তাকে গার্ড অব অনার দেওয়া হয়। তারপর নরেন্দ্র মোদি তার মন্ত্রিসভার সদস্যদেরকে শেখ হাসিনার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন। সোমবার সকালে বিশেষ বিমানে ভারতের উদ্দেশে ঢাকা থেকে রওনা হন প্রধানমন্ত্রী। ভারতে পৌঁছালে দেশটির রেল ও টেক্সটাইল প্রতিমন্ত্রী দর্শনা বিক্রম জারদোস তাকে স্বাগত জানান। এ সময় প্রধানমন্ত্রীকে লালগালিচা সংবর্ধনা দেওয়া হয়। বিকেলে শেখ হাসিনা ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের পর নিজামউদ্দিন আউলিয়ার দরগায় যান। সেখান থেকে এসে সন্ধ্যায় ভারতের অন্যতম বড় শিল্প গ্রুপ আদানির চেয়ারম্যানের সঙ্গে বৈঠক করেন শেখ হাসিনা। তার ভারত সফর উপলক্ষে বাংলাদেশ হাইকমিশনারের বাসায় নৈশভোজের আয়োজন করা হয়।

শীর্ষ খবর এর আরো খবর