এবার ক্ষমা চাইলেন ডা. মুরাদ

এবার ক্ষমা চাইলেন ডা. মুরাদ হাসান। নিজের কথায় ‘মা-বোনদের’ মনে কষ্ট দিয়ে থাকলে সে জন্য ক্ষমা চেয়েছেন। মঙ্গলবার দুপুরে তথ্য প্রতিমন্ত্রীর পদ ছাড়ার পর নিজের ব্যক্তিগত ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এক স্ট্যাটাসে তিনি এই ক্ষমা চান।
 
এর আগে দুপুরে ই-মেইলের মাধ্যমে নিজ দপ্তরে পদত্যাগপত্র পাঠান নারীদের নিয়ে বিভিন্নসময় কুরুচিকর মন্তব্যকারী ডা. মুরাদ হাসান। সম্প্রতি দেশের একজন চলচ্চিত্র অভিনেত্রীর সঙ্গে ফোনালাপে অশালীন ও কুরুচিকর কথোপকথনটি সামনে এলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঝড় শুরু হয়। পরে প্রধানমন্ত্রী তাকে মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগের নির্দেশ দেন।
 
স্ট্যাটাসে মুরাদ হাসান লিখেছেন, ‘আমি যদি কোনো ভুল করে থাকি অথবা আমার কথায় মা-বোনদের মনে কষ্ট দিয়ে থাকি তাহলে আমাকে ক্ষমা করে দিবেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মমতাময়ী মা দেশরত্ন বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার সকল সিদ্ধান্ত মেনে নেব আজীবন।’
আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের বর্তমান মেয়াদের শুরুতে ডা. মুরাদ হাসানকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী করা হয়। পরে ২০১৯ সালের মে মাসে মন্ত্রিসভা রদবদলের সময় তাকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে সরিয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী করা হয়।

জাতীয় এর আরো খবর