খেলাসর্বশেষ

ভারত পাকিস্তানের বল বাচ্চাদের মতো পিটিয়েছে

সে দিনটি মোটেও বাবর আজমের ছিল না, বাচ্চাদের মতো পিটিয়েছে ভারত

সে দিনটি মোটেও বাবর আজমের ছিল না। মাঠের পরিবেশ থেকে শুরু করে ঘটনার প্রবাহ, সবই ম্যাচে ভারতের পক্ষে ছিল। গতকাল আহমেদাবাদে প্রায়১ লাখ ৩০ হাজার  দর্শক উপস্থিত ছিলেন। যেখানে প্রায় পুরো সমর্থনই ছিল ইন্ডিয়ার পক্ষে। মাঠে গিয়ে খেলা দেখার সুযোগ পাওয়া পাকিস্তানিদের সংখ্যা খুব বেশি ছিল না।

এমন পরিবেশে সমস্যায় পড়েছে পাকিস্তান দলও। হেরেছে বিশাল ব্যবধানে। পাকিস্তানের দেওয়া ১৯২ রানের টার্গেট ১১৭ বল ও ৭ উইকেট হাতে রেখেই হারায় । পাকিস্তানের কাছে এমন হারের পর পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার শোয়েব আখতার চুপ থাকবেন না এটাই স্বাভাবিক। প্রাক্তন ফাস্ট বোলার দাবি করেছিলেন যে তিনি আহমেদাবাদের গ্যালারিতে লক্ষ লক্ষ ভারতীয় ভক্তদের চুপ করতে পারেন।

 

ভারত ক্রিকেট দল

ইন্ডিয়া-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে উচ্ছ্বসিত সবাই। এই দলে ছিলেন শোয়েবও। যে কারণে প্রথম ইনিংস শেষে একটি ভিডিও দেওয়ার পর ম্যাচের পর ইউটিউবে আরেকটি ভিডিও দেন এই ফাস্ট বোলার। যেখানে তারা পুরো পাকিস্তান দলকে হারিয়েছে। বিশেষ করে পাকিস্তানের ব্যাটিং অর্ডার। নিঃসন্দেহে, তার সমালোচনার যথেষ্ট কারণ ছিল।

গতকাল তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে পাকিস্তানের ব্যাটিং লাইনআপ। ১৫৫ রানে ২ উইকেট হারিয়ে ১৯১ রানে অলআউট হয় তারা। ৩৬ রানে শেষ ৮ উইকেট হারায় পাকিস্তান। অন্যদিকে, পাকিস্তানি বোলারদের মারধর করেছেন ইন্ডিয়ার অধিনায়ক রোহিত। শোয়েব মনে করেন, শিশুদের মতো পাকিস্তানি বোলারদের আঘাত করে প্রতিশোধ নিয়েছেন রোহিত।

শোয়েব তার ইউটিউব চ্যানেলে রোহিতের প্রশংসা করে বলেন, ‘রোহিত শর্মা যে ইনিংস খেলেছেন তা আসলে পাকিস্তানকে অপমান করেছে। গত দুই-তিন বছরে যেভাবে আউট হয়েছিলেন তার প্রতিশোধ নিলেন রোহিত। চার ব্যাটসম্যান, মিডল অর্ডার, স্পিনার না থাকলে পাকিস্তান কীভাবে ইন্ডিয়ার মতো দলকে হারাতে পারে? এটা অসম্ভব.’

ভারত
ভারত এর প্লেয়ার রোহিত

দুই দলের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে পার্থক্য ব্যাখ্যা করে শোয়েব বলেন, “আমাদের ব্যাটসম্যানদের সঙ্গে ইন্ডিয়ায় ব্যাটসম্যানদের মধ্যে বিরাট পার্থক্য রয়েছে। আজ পাকিস্তানের বোলারদের বাচ্চাদের মতো হারাল ভারত। আমি সেটা দেখতে পারিনি।

এরপর শোয়েব আরও বলেন, ভাই, শুধু শোয়েব আখতারই এই লাখ লাখ মানুষকে চুপ করতে পারে, আপনি না।

আরও খবর

পাকিস্তানকে হারানোর পর রোহিত যা বললেন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button