সর্বশেষখেলা

শ্রীলঙ্কা আইসিসির শাস্তির বিরুদ্ধে আপিল করবে

আইসিসি শ্রীলঙ্কার সদস্যপদ স্থগিত করার পর এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করার কথা

আইসিসি শ্রীলঙ্কার সদস্যপদ স্থগিত করার পর এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করার কথা জানিয়েছেন দেশটির ক্রীড়ামন্ত্রী রোশান রানাসিংহে।

আইসিসি
কলম্বোয় সংবাদকর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন শ্রীলঙ্কার ক্রীড়ামন্ত্রী রোশান রানাসিংহেছবি

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডে (এসএলসি) রাজনৈতিক হস্তক্ষেপের অভিযোগে গতকাল শ্রীলঙ্কার সদস্যপদ স্থগিত করে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। এসএলসিতে দুর্নীতির অভিযোগ এবং সে জন্য রাজনৈতিক ব্যক্তিদের হস্তক্ষেপ নিয়ে কিছুদিন ধরেই শ্রীলঙ্কার ক্রীড়াঙ্গনে তোলপাড় চলছিল। এর তাৎক্ষণিক পদক্ষেপ হিসেবে শ্রীলঙ্কার সদস্যপদ স্থগিত করে আইসিসি।

আইসিসি

সদস্যপদ স্থগিতের আগের দিন বিশ্বকাপে নিজেদের শেষ ম্যাচটি খেলে শ্রীলঙ্কা। ৯ ম্যাচে মাত্র দুটিতে জেতে কুশল মেন্ডিসের দল। বিশ্বকাপে জাতীয় দলের বাজে পারফরম্যান্স ও ক্রিকেট বোর্ডের ওপর শাস্তির পর আজ সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন শ্রীলঙ্কার ক্রীড়ামন্ত্রী।

তিনি ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থার সিন্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন তোলেন, এটা ঠিক হয়নি। যখন আইসিসি কিংবা অন্য কোনো সংস্থা নিষেধাজ্ঞা দেয়, তখন দীর্ঘ একটা প্রক্রিয়া মানা হয়… কিন্তু এটা বিস্ময় হয়ে এসেছে এবং সেটা নৈতিকতাবিরোধীও। তারা আমাদের দেশকে এভাবে কীভাবে অভিযুক্ত করতে পারে।”

ক্রিকেট  বিরোধ মীমাংসা কমিটিতে (ডিআরসি) আপিল করার কথা জানিয়েছেন রোশান রানাসিংহে। রাজধানী কলম্বোয় সংবাদকর্মীদের তিনি আরও বলেছেন, শ্রীলঙ্কার ওপর আরোপ করা আইসিসির এ নিষেধাজ্ঞা অবৈধ। অভিযোগের জবাব দেওয়ার সুযোগ না দিয়েই হীন উদ্দেশ্যে আমাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।’

আইসিসি

রানাসিংহে দাবি করেন, আইসিসি শ্রীলঙ্কার নির্বাচিত ক্রিকেট বোর্ডে ‘রাজনৈতিক হস্তক্ষেপের কথা বলেছে। কিন্তু অভিযোগগুলো কী, সে সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু বলেনি, ‘প্রথমে অভিযোগগুলো বলা হবে এবং তারপর আমরা এর জবাব দেওয়ার সুযোগ পাব। ডিআরসি থেকে আমরা কোনো সমাধান না পেলে সুইজারল্যান্ডে কোর্ট অব আরবিট্রেশন ফর স্পোর্টের দ্বারস্থ হব।’ সুইজারল্যান্ডে কোর্ট অব আরবিট্রেশন ফর স্পোর্ট হলো সর্বোচ্চ ক্রীড়া আদালত।

আইসিসি

শ্রীলঙ্কার সদস্যপদ স্থগিত করার বিবৃতিতে আইসিসি বলেছে, ‘ক্রিকেট বোর্ডে আজ (গতকাল) সভায় বসে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট সদস্য হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ বিধিনিষেধ লঙ্ঘন করেছে। বিশেষ করে স্বাধীনভাবে কাজ করতে ক্রিকেট প্রশাসনকে সরকারি হস্তক্ষেপের বাইরে থাকার প্রয়োজন ছিল। সময়মতো এই স্থগিতাদেশের শর্তগুলো জানিয়ে দেবে আইসিসি বোর্ড।’

রানাসিংহে অভিযোগ করেছিলেন, শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট বোর্ডে দুর্নীতির মাধ্যমে প্রচুর অর্থ লোপাট করা হচ্ছে। দেশটির আইনসভায় এ নিয়ে আলোচনাও হয়েছে এবং সেখানে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট বোর্ডকে পদত্যাগ করতেও বলা হয়। একপর্যায়ে ক্রীড়া মন্ত্রণালয় এসএলসিকে বরখাস্ত করে সাবেক অধিনায়ক অর্জুনা রানাতুঙ্গার নেতৃত্বে একটি অন্তর্বর্তীকালীন কমিটি করে, যা নিয়ে প্রেসিডেন্ট রনিল বিক্রমাসিংহে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। পরদিন আদালত অন্তর্বর্তীকালীন কমিটির কার্যক্রম দুই সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেন। এসব ঘটনার এক পর্যায়ে আইসিসি শ্রীলঙ্কার সদস্যপদ স্থগিতের কথা জানায়।

আইসিসি

তবে অনির্দিষ্টকালের এ নিষেধাজ্ঞার কারণে আগামী জানুয়ারিতে শ্রীলঙ্কা অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ আয়োজন করতে পারবে কি না, সে বিষয়ে কিছু জানা যায়নি। এসএলসির বরাত দিয়ে সংবাদ সংস্থা এএফপি জানিয়েছে অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ শ্রীলঙ্কা থেকে সরিয়ে নেওয়া হলে ভেন্যু প্রস্তুত করা বাবদ আইসিসির কাছ থেকে ২৪ লাখ ডলার বরাদ্দ হারাবে এসএলসি।

আইসিসি

আরও পড়ুন

নাজমুল হোসেন শান্ত প্রস্তুত বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক হতে

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button