আঞ্চলিকসর্বশেষ

আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো লালমনিরহাট জেলা ইজতেমা

রবিউল ইসলাম -লালমনিরহাট সদর প্রতিনিধি

দেশের মানুষের শান্তি ও মঙ্গল কামনায় আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে লালমনিরহাটের তিন দিনব্যাপী জেলা ইজতেমা।

আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন কাকরাইল মসজিদের সুরা সদস্য মাওলানা মোহাম্মদ উল্যাহ।

শনিবার (১১ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টায় লালমনিরহাট জেলা কালেক্টরেট মাঠের ইজতেমায় মোনাজাত শুরু হয়। মোনাজাত চলে প্রায় আধা ঘন্টা। এর আগে বৃহস্পতিবার (৯ নভেম্বর) ফজর নামাজের পর আমবয়ানের মধ্য দিয়ে লালমনিরহাটে তিবদিন ব্যাপি জেলা ইজতেমা শুরু হয়।

 আখেরি মোনাজাত
আখেরি মোনাজাত

ইজতেমায় জেলার ৫টি উপজেলা ও দুইটি পৌরসভাসহ রংপুর বিভাগের বিভিন্ন জেলার হাজার হাজার মুসুল্লি ইজতেমা মাঠে সমবেত হন। মোনাজাতে অংশ নিতে খুব সকাল থেকেই মানুষের ঢল নামে ইজতেমা মাঠ ও মাঠের চারিপাশে। সকাল ৯টার মধ্যে পুরো ইজতেমা মাঠ কানায় কানায় ভরে যায়। মাঠে জায়গা না পাওয়ায় মুসুল্লিগন ইজতেমা মাঠের পাশে মুল সড়কে বিছানা ও জায়নামাজ বিছিয়ে মোনাজাতে অংশ নেন।

এছাড়াও ইজতেমা মাঠের পাশে বিভিন্ন বাসা বাড়ি ও বাড়ির সামনে বসে হাজার হাজার মুসলিম নারীদের মোনাজাতে অংশ নিতে দেখা গেছে। মোনাজাতে মাওলানা মোহাম্মদ উল্যাহ ইজতেমার কামিয়াবি, অংশগ্রহণকারীসহ সব মুসলমানদের গোনাহ মাফ, দুনিয়া ও আখেরাতের কল্যাণ, বিশ্ব শান্তি, বিশ্ববাসীর সুখ-সমৃদ্ধি কামনা করেন।

আখেরি মোনাজাত
আখেরি মোনাজাত

লালমনিরহাট সদর থানার অফিসার (ওসি) ওমর ফারুক বলেন, মোনাজাতকে ঘিরে ইজতেমা মাঠ ও এর আশপাশের এলাকায় পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিশেষ পুলিশি নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। ইজতেমা মাঠের পাশেই তৈরী করা হয় ওয়াচিং টাওয়ার। যে টাওয়ার থেকে পুরো ইজতেমা মাঠ ও মাঠের আশপাশ নজরে রাখা হয়। আখেরি মোনাজাততবে এবারে লালমনিরহাট জেলা ইজতেমায় লোক সমাগম বেশি হওয়ায় মাঠের পাশের রেল স্টশন থেকে মিশনমোড় রাস্তাটি বন্ধ করে দেয়।

আরও খবর
ইসলামিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও বাৎসরিক প্রতিবেদন সভা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button