বাণিজ্যসর্বশেষ

রাজধানীর ১২ টাকায় ডিম বিক্রির পরিকল্পনা করছেন

রাজধানীর বাজারে প্রতিটি ডিমের দাম ১৩ টাকার ওপরে পৌঁছেছে

রাজধানীর বাজারে প্রতিটি ডিমের দাম ১৩ টাকার ওপরে পৌঁছেছে। এমন পরিস্থিতিতে রাজধানীর ২০টি স্থানে প্রান্তিক চাষিদের নির্ধারিত ১২ টাকা দরে ​​ডিম বিক্রির বিষয়ে সরকারের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে।

তবে কবে থেকে এই কার্যক্রম শুরু হবে তা এখনো ঠিক হয়নি। পরিকল্পনাকারীরা লিখিত অনুমতিও পাননি।

রাজধানীর

বাংলাদেশ পোল্ট্রি অ্যাসোসিয়েশন (বিপিএ) আজ বুধবার সরকারি সংস্থা জাতীয় ভোক্তা রাজধানীর অধিকার অধিদপ্তরের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছে। ভোক্তা দপ্তরের পক্ষ থেকে সংগঠনের সভাপতি সুমন হাওলদারকে এ বিষয়ে লিখিত আবেদন করতে বলা হয়েছে। লিখিত আবেদনের বিষয়ে সরকার সিদ্ধান্ত নেবে।

ভোক্তা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এএইচএম সফিকুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, “রাজধানীতে ১২ টাকায় ডিম বিক্রির মৌখিক প্রস্তাব এসেছে একটি প্রতিষ্ঠান থেকে। আমরা তাদের আনুষ্ঠানিকভাবে জানাতে বলেছি। তারপর পুরো বিষয়টি বিবেচনা করে তাদের কাছে তথ্য দেওয়া হবে।

বাংলাদেশ পোল্ট্রি অ্যাসোসিয়েশন (বিপিএ) সরকার নির্ধারিত মূল্যে (১২ টাকা) ট্রাকে ডিম বিক্রি করবে। রাজধানীর প্রধান বাজার ও ২০টি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ডিম বিক্রির পরিকল্পনার কথা তিনি ভোক্তা বিষয়ক অধিদপ্তরকে জানান। দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে প্রান্তিক চাষিদের কাছ থেকে এসব ডিম আসবে। বিপিএ-এর মাধ্যমে প্রান্তিক কৃষকদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে।

বিপিএ সভাপতি সুমন হাওলাদার প্রথম আলোকে বলেন, “অনুমতি পেলে আমরা আগামী সপ্তাহে ডিম বিক্রি শুরু করতে পারব। কাজ সমন্বয়ের চেষ্টা চলছে। এতে কৃষকরা যেখানে ন্যায্য দাম পাবে, বাজারে দাম কমারও প্রভাব পড়বে।

এর আগে ব্যবসায়ীদের প্রস্তাব বিবেচনা করে খোলাবাজারে চিনি বিক্রির অনুমতি দেয় সরকার। চিনি উৎপাদনকারীদের অনেক সংগঠন এই কর্মসূচিতে অংশ নেয়। এখন প্রান্তিক কৃষক সংগঠনের ব্যানারে ডিম বিক্রির মৌখিক প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। তবে এই ডিম বিক্রি আসলে কীভাবে পরিচালিত হবে সে বিষয়ে এখনও কিছু চূড়ান্ত হয়নি।

এদিকে গত ১৪ সেপ্টেম্বর পেঁয়াজ, আলু ও ডিমের দাম নির্ধারণ করে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এরপরই ভোক্তা বিষয়ক অধিদপ্তর বাজারে অভিযান চালায়। তবে এখনো বাজারে চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে এসব পণ্য। সরকারি দাম কার্যকর নয়।

সরকার ইতোমধ্যে ১৫টি বেসরকারি কোম্পানিকে ১৫ কোটি ডিম আমদানির অনুমতি দিয়েছে। তবে তিন সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও দেশে কোনো ডিম আসেনি।

আরো পড়ুন

দাম কমেছে ডিমের, প্রতি ডিম মাত্র ৭ টাকা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button