আঞ্চলিকসর্বশেষ

পানকৌড়ি পরিবার সাহিত্যের বার্তা নিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের দ্বারপ্রান্তে।

কুড়িগ্রাম জেলার চিলমারী উপজেলার প্রাচীন বন্দর নগরী চিলমারী বাংলাদেশের ঐতিহ্য ইতিহাসকে ঘিরে সাহিত্যের অনন্য এক নাম পানকৌড়ি সাহিত্য অঙ্গন।

পানকৌড়ি

বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে সাহিত্যের বার্তা পৌঁছে দিচ্ছেন পানকৌড়ি সাহিত্য অঙ্গন পরিবার। অদ্য ৫জুলাই রোজ সোমবার থানাহাট এ.ইউ.পাইলট সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ে ছাত্রদের মাঝে সুস্থ সংস্কৃতি ও সাহিত্য প্রেমী প্রতিভাবান ছাত্রদের সাথে সৌজন্য আলোচনা ও সুফল তুলে ধরে তাদের প্রতিভা বিকশিত করার লক্ষ্যে এক পাক্ষিক সাক্ষাৎ ও সাহিত্যের ঝলক সবার মাঝে ছড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান করেন পানকৌড়ি পরিবার।

এ সময় উৎসবমুখর পরিবেশে অনেকেই ছড়া কবিতা ও গান পরিবেশন করেন। সাহিত্যের বার্তা কোমলমতি ও প্রতিভাবান ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে পৌঁছে দিতে এ সংগঠন টি যাত্রা শুরু করে ২২এপ্রিল ২০২৩ খ্রিস্টাব্দে। সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা নাজমুল হুদা পারভেজ তিনি চিলমারী মহিলা ডিগ্রি কলেজের সহকারী অধ্যাপক ও একাধারে একজন কবি লেখক ও সিনিয়র সাংবাদিক। অনেক প্রতিভাবান সাহিত্য প্রেমি কবিগন সংগঠনের সাথে যুক্ত আছেন।

সংগঠনটির মুল লক্ষ্য সাহিত্যের প্রসার ঘটানো। প্রতি মাসের ১৫ ও ৩০ তারিখ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে কলমে শিক্ষা দেওয়া হয়। এছাড়াও সাপ্তাহিক পাক্ষিক কর্মশালাসহ নানাবিধ সাহিত্য চর্চার প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছেন অত্র সংগঠনটি। পানকৌড়ি সাহিত্য অঙ্গন পরিবারের সাধারন সম্পাদক প্রভাষক মনজুরুল আহসান বলেন আমাদের লক্ষ্য একটাই সঠিক তদারকির মাধ্যমে সাহিত্য চর্চার প্রসার ঘটিয়ে একটি সুন্দর সমাজ গড়া।পানকৌড়ি

সাহিত্যই পারে সমাজের দৃষ্টি বদলাতে,এছাড়াও দেখা যায় আজকের তরুণরা মাদকাসক্ত হয়ে যাচ্ছে, সাহিত্যের চর্চা থাকলে তারা ভালো পথে ফিরে আসবে। চিলমারী উপজেলায় সাহিত্যের এমন প্লাটফর্ম হওয়ায় সাহিত্যের মাধ্যমে আগামীর জন্য ছাত্র -ছাত্রীদের মানসিক বিকাশ ঘটবে। পানকৌড়ি অনলাইন প্লাটফর্ম এ বেশ সংখ্যক কবির বিচরণ লক্ষ করা যায়। সাপ্তাহিক কবিতা প্রতিযোগিতা ও ক্রেস্ট প্রদান ও কবিদের উৎসাহ প্রদান সহ নানা কর্মসুচি পালন করছে আসছে সংগঠনটি।ইতো মধ্যে বেশ আলোড়ন সৃষ্টি করতে সক্ষম হয়েছে পানকৌড়ি সাহিত্য অঙ্গন পরিবার।

সংগঠনটির প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আরমান হোসাইন (অনিক), জানান আমাদের স্কুল ভিত্তিক কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে চিলমারী উপজেলাধীন সকল উচ্চ মাধ্যমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় এ সাহিত্যের বার্তা আমরা পৌঁছে দিতে সক্রিয় রয়েছি। তার পর জেলা ভিত্তিক প্রয়োজন পড়লে যেতেই পারি তাছাড়াও অনলাইনের মাধ্যমে আমাদের সাথে ভারতের কলকাতা সহ বেশ সারাদেশের কবি ও সাহিত্য প্রেমিরা সংযুক্ত আছেন।পানকৌড়ি

প্রচার সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিয়াদ জানায় সংগঠনের মুল লক্ষ্য সাহিত্যে মাধ্যমে বাংলা ও সমাজের দৃষ্টি ভঙ্গি বদলানো। আমরা প্রতিটা প্রতিভাবান শিল্পীদের খুঁজে বের করে একটা সুন্দর জায়গা তৈরী করে দিচ্ছি। এটা সাহিত্যের প্রসারে ব্যাপক ভুমিকা রাখবে বলে আমরা আশাবাদী। সাহিত্য নিয়ে এমন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা নাজমুল হুদা পারভেজ ও সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক মঞ্জুরুল আহসান বিনা স্বার্থে অনর্গল কাজ করে বেশ প্রশংসিত হচ্ছে। ঐতিহ্যবাহী চিলমারী নদী বন্দরের ইতিহাস কে ঘিরে সংগঠনটির নামকরন করেন পানকৌড়ি সাহিত্য অঙ্গন।

আরও খবর
চিলমারীতে থানাহাট ইউনিয়নের CSSYO সংগঠনের কমিটি গঠন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button