আঞ্চলিকবিশেষসর্বশেষ

দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা চষে বেড়াচ্ছেন নির্বাচনী মাঠ

আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়নের জন্য ১৬/১৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ২৮ কুড়িগ্রাম-৪ (চিলমারী, রৌমারী ও রাজীবপুর) আসনের আসনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা নানাভাবে নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন।

এদিকে সরকার পতনের দাবিতে আন্দোলনে ব্যস্ত বিএনপি-জামায়াতসহ অন্যান্য দলের নেতাকর্মীরা। ভোটের মাঠে অন্য দলের কদম দেখা না গেলেও নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা মাঠে রয়েছেন বলে প্রমাণ দিচ্ছেন। নৌকা প্রতীকের প্রার্থীরা এখন অভিনন্দন ব্যানার, সাজসজ্জা, পোস্টার, প্রচারপত্র বিতরণ ও গণসংযোগে ব্যস্ত। জনসমর্থনের জন্য মরিয়া হয়ে তারা নানা প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন। তারা বিভিন্ন স্থানে সভা-সমাবেশ করে সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বিভিন্নভাবে তুলে ধরছেন। একই সময়ে, তারা কেন্দ্রীয় দলের নেতাদের সাথে যোগাযোগ বাড়িয়ে জনসাধারণের বক্তৃতা সুরক্ষিত করতে দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন।

কুড়িগ্রাম-৪ (চিলমারী, রৌমারী ও রাজীবপুর) আসনের ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়নের জন্য ১৬/১৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বলে জানা গেছে। নৌকার মাঝি হিসেবে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মাঠে ব্যানার, পোস্টার, ডেকোরেশন, লিফলেট বিতরণসহ বিভিন্নভাবে গণসংযোগ করতে দেখা যায়।

মনোনয়ন প্রত্যাশী
আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী মো.জাকির হোসেন

এই আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য জাকির হোসেন। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ সরকারের প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। নবম ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে তিনি এ আসনে নির্বাচিত হওয়ায় এবারও প্রার্থীতা চাইবেন।

মোঃ রহিমুজ্জামান সুমন, সাংগঠনিক সম্পাদক, চিলমারী উপজেলা আওয়ামী লীগ। ছাত্র রাজনীতি থেকে উঠে আসা এই নেতা দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছেন। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে তিনি বিভিন্ন তথ্য দিয়ে থাকেন।

মনোনয়ন প্রত্যাশী
আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী এডভোকেট শেখ জাহাঙ্গীর আলম

শেখ জাহাঙ্গীর আলম, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপকমিটির সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট। ক্ষমতাসীন দলের মনোনয়ন পেতে পোস্টার-ব্যানার লাগাচ্ছেন তিনি।দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি এ আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন চাইবেন।

সাবেক সংসদ সদস্য প্রয়াত সাদাকাত হোসেন ছক্কু মিয়ার ছেলে অ্যাডভোকেট সাজেদ হোসেন টাটা রংপুর আইন কলেজের অধ্যক্ষ। ব্যানার ও পোস্টার লাগিয়ে নিজেকে প্রার্থী হিসেবে তুলে ধরেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি এ আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন চাইবেন।

কুড়িগ্রাম জেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ও জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আমজাদ হোসেন। অভিনন্দন ব্যানার ও পোস্টার বিতরণের পাশাপাশি তিনি স্ব-মনোনয়নের প্রার্থী হিসেবে বিভিন্নভাবে প্রচারণা চালাচ্ছেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি এ আসন থেকে মনোনয়ন চাইবেন।

দলীয় মনোনয়ন
আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ডা.ফারুকুল ইসলাম ফারুক

ডাঃ ফারুকুল ইসলাম ফারুক আ-লীগ সমর্থিত ফ্রিডম ফিজিশিয়ান কাউন্সিল এবং রমনা মডেল ইউনিয়নের সদস্য। নৌকা মার্কার মনোনয়ন পেতে পোস্টার ও লিফলেট বিতরণ ছাড়াও বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরে জনসমর্থন আদায়ে দিনরাত গণসংযোগ করছেন।

রাজীবপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আকবর হোসেন হিরো। নৌকার পক্ষে ভোট চেয়ে ব্যাপক প্রচারণা চালাচ্ছে। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি এ আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন চাইবেন।

চিলমারী উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি ও চিলমারী উপজেলা পরিষদের সহ-সভাপতি নুরুজ্জামান আজাদ জামান। ছাত্র রাজনীতি থেকে উঠে আসা এই নেতা নৌকার মাঝি হিসেবে প্রার্থীতা চাইবেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা, রাজীবপুর উপজেলা আ’লীগের সভাপতি মোঃ আব্দুল হাই সরকার। তিনি পোস্টার ও সাজসজ্জা করে নিজেকে প্রার্থী হিসেবে প্রচার করছেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি এ আসন থেকে মনোনয়ন চাইবেন।

রৌমারী উপজেলার সাবেক উপজেলা পরিষদের সভাপতি মজিবুর রহমান মূলত বাংলার বাসিন্দা। তিনিও নানাভাবে প্রচারণায় ব্যস্ত। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি এ আসন থেকে মনোনয়ন চাইবেন।

দলীয় মনোনয়ন
আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী রেজাউল করিম লিচু

চিলমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম লিচু। তিনি দীর্ঘদিন উপজেলা আ.লীগের সহ-সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে বর্তমানে সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি এ আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন চাইবেন।

কুড়িগ্রাম জেলা থেকে আ.লীগের সদস্য ও রাজীবপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক সভাপতি মোঃ সাফিউল আলম। নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন চাইবেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি এ আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন চাইবেন।

অ্যাডভোকেট মাসুম ইকবাল, কুড়িগ্রাম জেলা আ.লীগের সদস্য ও বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ড. তিন উপজেলার এই আসনে মনোনয়নের জন্য প্রচারণা চালাচ্ছেন তিনি। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি এ আসন থেকে মনোনয়ন চাইবেন।

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট বিপ্লব হাসান পলাশ। তিনিও প্রার্থী হিসেবে জোর প্রচারণা চালাচ্ছেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি এ আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন চাইবেন।

এছাড়াও প্রচারণায় পরিচালক ফজলুল হক মনি, হাজী মুরাদ লতিফসহ বেশ কয়েকজনের নাম শোনা যাচ্ছে।
আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কুড়িগ্রাম-৪ (চিলমারী, রৌমারী ও রাজীবপুর) আসনের রাজনৈতিক অঙ্গন সক্রিয় হয়ে উঠেছে। ব্রহ্মপুত্র নদের বিচ্ছিন্ন তিন উপজেলায় চলছে প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা। নৌকার মাঝি হতে প্রার্থীতা ঘোষণা করতে মাঠে নেমেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের তিন উপজেলার প্রার্থীরা। দলীয় কর্মকান্ডে পরিপূর্ণ উপস্থিত থাকাসহ বিভিন্ন ধরনের সামাজিক কর্মকান্ডে তারা অনেকটা সময় ব্যয় করেন। অনেকেই নৌকায় ভোট চেয়ে এলাকায় গণমাধ্যমে প্রচার শুরু করেছেন।

আরও খবর পড়ুন
নির্বাচনী পরিবেশ নিয়ে অসন্তোষ, প্রস্তুতিতে ব্যস্ত ইসি

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button