আন্তর্জাতিকসর্বশেষ

ইসরায়েল-গাজা পরিস্থিতি নিয়ে ফোনে কথা বলেছে আমেরিকা ও চীন

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেন এবং চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেন এবং চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই ইসরায়েল-গাজা পরিস্থিতি নিয়ে ফোনে কথা বলেছেন।

ইসরায়েল–গাজা পরিস্থিতি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের ফোনালাপ

ব্লিঙ্কেন মধ্যপ্রাচ্যের অন্যান্য দেশে যাতে সংঘাত ছড়িয়ে না পড়ে তা নিশ্চিত করতে চীনের সাহায্য চেয়েছিলেন। এর জবাবে ওয়াং ওয়াশিংটনকে এ ব্যাপারে ‘গঠনমূলক ও দায়িত্বশীল ভূমিকা’ পালনের আহ্বান জানান।

গত ৭ অক্টোবর ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ সংগঠন হামাস ইসরায়েলে হামলা চালায়। নিহত হয়েছেন প্রায় ১ হাজার ৩০০ জন। এরপর থেকে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী গাজায় হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। নিহত ফিলিস্তিনিদের সংখ্যা দুই হাজার ছাড়িয়েছে। গাজায় বড় ধরনের স্থল অভিযানের প্রস্তুতিও নিচ্ছে ইসরাইল।

“যে দেশগুলি সমগ্র বিশ্বকে প্রভাবিত করে এমন সংকট মোকাবেলায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে তাদের উচিত বস্তুনিষ্ঠতা এবং নিরপেক্ষতা মেনে চলা, শান্তি ও সংযম বজায় রাখা এবং আন্তর্জাতিক আইন মেনে চলার ক্ষেত্রে নেতৃত্ব দেওয়া,” ওয়াং বলেছিলেন।

চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেছেন যে বেইজিং যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এ বিষয়ে “শান্তি আলোচনা” করার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

চীনের সরকারি এক বিবৃতিতে সংঘর্ষের নিন্দা করা হয়েছে। তবে সেখানে হামাসের কথা বলা হয়নি। এটি অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়েছে এবং ‘শক্তির নির্বিচার ব্যবহারের’ নিন্দা করেছে। এবং “গাজার সমস্ত লোকের শাস্তি” বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছে।

আরো পড়ুন

ফিলিস্তিনের পক্ষে পোস্ট দেওয়ায় ডাচ ফুটবলারের চুক্তি বাতিল

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button